1. admin@spicynews24.com : admin :
  2. nfjsduwdwdyu@gmail.com : mk tr : mk tr
ওমান প্রবাসীদের জন্য দুঃসংবাদ! -

ওমান প্রবাসীদের জন্য দুঃসংবাদ!

  • আপডেটঃ রবিবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১ বার পঠিত

 

ওমানে বেসরকারি খাতের বেশ কয়েকটি পেশায় প্রবাসী কর্মীদের নিষেধাজ্ঞা জারি করে ওমানিকরনের নতুন আইন জারী করেছে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়। বিশেষ করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে হিসাবরক্ষণ পেশায় এই নিষেধাজ্ঞা এসেছে। নতুন যে পেশায় এখন থেকে প্রবাসীরা কাজ করতে পারবেন না তার মধ্যে রয়েছে,

১. বীমা সংস্থা বা বীমা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের আর্থিক ও প্রশাসনিক পেশায়। ২. মলে পরিচালিত দোকানের বিক্রয়-কর্মী, হিসাবরক্ষক, মানি এক্সচেঞ্জ এবং পণ্য সরবরাহের পেশায়। ৩. গাড়ি এজেন্সির হিসাবরক্ষণ বা অডিটিং পেশায়। ৪. নতুন এবং ব্যবহৃত যানবাহন বিক্রয় পেশায়।

৫. গাড়ি এজেন্সির নতুন ও ব্যবহৃত যানবাহন বিক্রির সকল হিসাবরক্ষণ পেশায়। ৬. গাড়ি এজেন্সির সাথে যুক্ত নতুন যানবাহনের খুচরা যন্ত্রাংশ বিক্রিয়ের পেশায়।

নতুন এই এই সিদ্ধান্তটি আগামী ৬ মাস পর থেকে কার্যকর করা হবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়। তবে যেসকল প্রবাসী বর্তমানে এই পেশায় কর্মরত আছেন, তাদের ভিসার মেয়াদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই পেশায় কাজ করতে পারবেন বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। চাকরীর ক্ষেত্রে ৭২ শতাংশ ওমিনিকরণ করছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ওমানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চাকরীর ক্ষেত্রে ৭২ শতাংশ ওমানিকরণ করা হয়েছে। বর্তমানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কর্মরত ওমানি নাগরিকের পরিমাণ ৩৯ হাজার ৪১৩ জন।

রবিবার ওমানের শূরা কাউন্সিলের এক বৈঠকে এই তথ্য জানান দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী আহমেদ আল সাইদী। তিনি বলেন ২০১৬ সালে এর হার ছিলো ৬৯ শতাংশ। মন্ত্রী আরও বলেন, ‘‘ওমানের চারটি স্বাস্থ্যসেবা হাসপাতালে এখন ওমানিকরণের পরিমাণ ৭০ শতাংশ ছাড়িয়েছে। সবচেয়ে বেশি ওমানিকরণে সফল হয়েছে রয়্যাল হাসপাতাল।

এই হাসপাতালে ওমানিকরণের পরিমাণ ৭৭.৮ শতাংশ। দেশে রোগীদের পরিমাণ বৃদ্ধির সাথে মিল রেখে ডায়ালাইসিস ইউনিটগুলিও বাড়ানো হয়েছে।” দেশটিতে ডায়াবেটিস, রক্তচাপ এবং স্থূলত্বের প্রবণ রোগীদের সংখ্যা রেকর্ড করা হচ্ছে বলে শুরা কাউন্সিলকে অবহিত করেন মন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, কোনো ব্যাক্তিকে বিদেশে চিকিৎসা নেওয়ার আর প্রয়োজন নেই। আশা করা যাচ্ছে আমরা এখন থেকে আন্তর্জাতিক মানের চিকিৎসা সেবা দিতে পারবো রোগীদের। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দশম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা তৈরি করে নতুন প্রকল্পের প্রস্তাব করা হবে বলে জানান মন্ত্রী। তবে দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতির সাথে সামঞ্জস্য রেখেই এই পরিকল্পনা নেওয়া হবে।

ওমানের ৪টি খাতে চ্যালেঞ্জের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, স্বাস্থ্য খাতে ওমানের যে চ্যালেঞ্জ রয়েছে তার মধ্যে, ক। আর্থিক সংস্থার চ্যালেঞ্জ। খ। স্বাস্থ্য সমস্যা সম্পর্কিত চ্যালেঞ্জ। গ। স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কিত চ্যালেঞ্জ। ঘ। মানব সম্পদ উন্নয়ন সম্পর্কিত চ্যালেঞ্জ।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর পড়ুন
© 2021 | All rights reserved by Spicy News
Customized BY Spicy News