1. admin@spicynews24.com : admin :
  2. nfjsduwdwdyu@gmail.com : mk tr : mk tr
গরম খবর: মালয়েশিয়ায় সব সেক্টর চালু, ছুটিতে থাকাদের সুখবর -
শিরোনাম

গরম খবর: মালয়েশিয়ায় সব সেক্টর চালু, ছুটিতে থাকাদের সুখবর

  • আপডেটঃ শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৮ বার পঠিত

 

মালয়েশিয়ায় অর্থনৈতিক গুরুত্বপূর্ণ সব সেক্টর চালুর ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব। বিদেশি শ্রমিক বা কর্মীরা কাজ করে এমন সেক্টরও খুলে দেয়া হয়েছে। ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে এই নির্দেশনা কার্যকর হবে। এতে করে ছুটিতে থাকা প্রবাসীদের জন্য শিগগিরই সুখবর আসতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

 

আরও পড়ুন: মালয়েশিয়ার টেকসই অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা রয়েছে বিদেশি শ্রমিকদের

মালয়েশিয়ার উন্নয়ন অভিজ্ঞতা নিয়ে ২০১৬ সালের মার্চ থেকে একটি গবেষণা শুরু করে বিশ্বব্যাংক। ২০২০ সালের এপ্রিলে ‘হু ইজ কিপিং স্কোর? এসটিমেটিং দ্য নম্বর অব ফরেন ওয়ার্কার্স ইন মালয়েশিয়া’ শীর্ষক ওই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশ হয়। সেখানে দেখানো হয়, মালয়েশিয়ার টেকসই অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা রয়েছে বিদেশি শ্রমিকদের। দেশটির লেবার ফোর্স সার্ভের তথ্য ব্যবহার করে এতে বলা হয়, সেখানে প্রায় ২২ লাখ ৭০ হাজার বিদেশিকর্মী বিভিন্নখাতে কর্মরত।

সে হিসেবে দেশটিতে অবৈধভাবে কর্মরত প্রায় ১২ লাখ বিদেশি। বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মালয়েশিয়ায় অবৈধ হয়ে পড়া বিদেশিকর্মীর ৪১ শতাংশই বাংলাদেশি, ৩০ শতাংশ ইন্দোনেশিয়ার, ১২ শতাংশ ভারতের, ফিলিপাইনের ছয় শতাংশ ও নেপালের পাঁচ শতাংশ, দুই শতাংশ করে পাকিস্তান, ভিয়েতনাম ও মিয়ানমারের নাগরিক। এছাড়া শ্রীলংকা ও থাইল্যান্ড থেকে প্রবেশ করা কর্মীরাও মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে অবস্থান করছেন।

অবৈধ হলেও মালয়েশিয়ার অর্থনীতিতে অবদান রাখায় এসব কর্মীদের নব্বইয়ের দশক থেকেই বৈধ হওয়ার সুযোগ দিচ্ছে, সম্প্রতি ৬ পি, রি হায়ারিং, রিকেলাইব্রাসি এবং কোম্পানি পরিবর্তন করার সুযোগও দিয়েছে দেশটি। এসব কর্মসূচির আওতায় বৈধ হওয়ার সুযোগ পেয়েছে বিদেশি কর্মীরা। তাদের মধ্যে বাংলাদেশের কর্মীদের অংশ সর্বাধিক। ফলে এটাই প্রমাণ করে যে, বাংলাদেশের কর্মীরা বৈধভাবে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করতে বেশি আগ্রহী।

আবহাওয়া, খাবার, ধর্মীয় মিল থাকায় বাংলাদেশিদের জন্য পছন্দের অন্যতম দেশ মালয়েশিয়া। অবৈধ হওয়ার কারণ হিসেবে বিশ্ব ব্যাংকের গবেষণা মতে, বিভিন্ন দেশ থেক উল্লেখযোগ্য একটা অংশ সেখানে গিয়েছিলেন ট্যুরিস্ট ভিসায় এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নিজ দেশে না ফিরে তারা সেখানে বিভিন্ন কাজে নিযুক্ত হয়ে থেকে যাচ্ছেন। দেশটির আইন অনুযায়ী, আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোর নাগরিকরা ট্যুরিস্ট ভিসায় গিয়ে মালয়েশিয়ায় ৩০ দিনের বেশি অবস্থান করতে পারবেন না।

তবে আসিয়ানের সদস্য নয় এমন দেশগুলোর নাগরিকরাও অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা নিয়ে মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে অবস্থান করেছেন। এসব নাগরিকের বেশিরভাগ ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার। এ কারণে মালয়েশিয়া সরকার ২০১৯ সালে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, পাকিস্তান, ভারত, চীন, নেপাল ও মিয়ানমারের নাগরিকদের অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা বন্ধ করে দিয়েছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০০৭ সালেই মালয়েশিয়ায় এক লাখ ৩৬ হাজার ৫০০ জন বিদেশি অন অ্যারাইভাল সুবিধা নিয়ে প্রবেশ করে এবং ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও সেখানে অবৈধভাবে অবস্থান করেছেন। একই সঙ্গে তারা কর্মসংস্থানের চেষ্টাও করেছেন।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর পড়ুন
© 2021 | All rights reserved by Spicy News
Customized BY Spicy News