Wed. Jan 26th, 2022

 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, আগামী সাতদিন বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই সাত দিনের মধ্যেই বাংলাদেশ বিজয়ের মাসে প্রবেশ করবে, বাংলাদেশ বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর উৎসব করবে। আবার এই সাত দিন অনেক রাজনৈতিক এবং পারিপার্শ্বিক গুরুত্বপূর্ণ স্পর্শকাতর বিষয় রয়েছে, যেটি রাজনীতির গতি-প্রকৃতিকে পাল্টে দিতে পারে।

আগামী সাত দিন অত্যন্ত স্পর্শকাতর এবং এই সাত দিনে অনেক কিছুই ঘটতে পারে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন। আগামী সাত দিন যে বিষয়গুলোর দিকে দেশের জনগণ সতর্ক নজর রাখবে তার মধ্যে রয়েছে:

১. বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা: চিকিৎসকরা বলছেন যে, বেগম খালেদা জিয়ার যে অসুখ সেই অসুস্থতা অত্যন্ত জটিল এবং অলৌকিক কিছু না ঘটলে এই অসুস্থতা চূড়ান্ত পরিণতির দিকেই নিয়ে যায় একজন মানুষকে। যদিও আজ বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে বলে বলা হচ্ছে।

কিন্তু চিকিৎসকরা বলছেন, তিনি যে রোগে আক্রান্ত হয়েছেন অর্থাৎ লিভার সিরোসিস এটির তেমন কোনো চিকিৎসা নেই, সময়ের ব্যাপার। আগামী সাতদিনে বেগম খালেদা জিয়ার কি পরিণতি হয় তার উপর দেশের অনেক কিছুই নির্ভর করছে। কারণ শেষ পর্যন্ত যদি বেগম খালেদা জিয়া বিদেশে না যেতে পারেন এবং দেশেই যদি তার চূড়ান্ত পরিণতি হয় তাহলে সেক্ষেত্রে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে উত্তাপ ছড়াতে পারে। এই উত্তাপ কতদূর যাবে এবং এটির রাজনীতিকরণ কতটুকু হবে সেটি বোঝা যাবে আগামী সাতদিনে।

২. সড়ক আন্দোলন: নিরাপদ সড়কের দাবিতে আবার বৃহস্পতিবার থেকে আন্দোলন শুরু হয়েছে এবং শিক্ষার্থীরা ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছে রোববারের মধ্যে দাবি আদায় না হলে তারা আন্দোলন চূড়ান্ত করবে। ইতিমধ্যেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছেন। তিনি ছাত্রদের দাবির কাছে একাত্মতা ঘোষণা করে সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেছেন। নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম গত বুধবার সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন।

এর পরদিনই আবার পান্থপথে একজন সংবাদকর্মী মৃত্যুবরণ করেন। এই সবকিছু মিলিয়ে নিরাপদ সড়কের আন্দোলন আবার জটিল হয়ে উঠেছে। খুব শীঘ্রই এই নিয়ে রাজপথ উত্তপ্ত হতে পারে। আগামী সাত দিনের মধ্যে যদি সরকার নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে না পারে কিংবা সড়ক আইন বাস্তবায়নের পদক্ষেপ গ্রহণ না করতে পারে তাহলে এটি একটি জটিল পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে বলে বিভিন্ন সূত্র মনে করছে।

৩. হাফ পাস: হাফ পাসের দাবিতে আন্দোলন ক্রমশ বেগবান হচ্ছে এবং এর সঙ্গে আবার নিরাপদ সড়কের আন্দোলনও যুক্ত হচ্ছে। এর ফলে আগামী সাত দিন যদি শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়ার দাবিটি না মিটে তাহলে একটি জটিল পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। সরকারকে এ ব্যাপারে অত্যন্ত দায়িত্বশীলতার সঙ্গে এবং দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

৪. ইউনিয়ন পরিষদের তৃতীয় ধাপের নির্বাচন: ২৮ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদের তৃতীয় ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এবং গত দুই পর্বে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে যেরকম সহিংসতা এবং সন্ত্রাস হয়েছে তাতে তৃতীয় ধাপের নির্বাচন নিয়ে একধরনের উৎকণ্ঠা তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে আওয়ামী লীগে বিদ্রোহী প্রার্থীদের উত্থান, সহিংসতা, রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে একটা সংকট তৈরি করেছে। এই ধারায় তৃতীয় পর্যায়ের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একই সংকট তৈরি হবে কিনা সেটি একটি উদ্বেগের বিষয় বলেই অনেকে মনে করছেন।

৫. সারাদেশে সন্ত্রাস-সহিংসতা: হঠাৎ করে দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। বিশেষ করে কুমিল্লার এই ঘটনার পর দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সন্ত্রাস একটি বড় অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে। এ ব্যাপারে সরকারের কঠোর পদক্ষেপ দাবি করেন দেশের জনগণ। আর আগামী সাতদিন বোঝা যাবে যে, এই বিষয়ে সরকার কি পদক্ষেপ নিচ্ছে।

তাই আমাদের রাজনীতির প্রেক্ষাপটে আগামী সাত দিন অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং এই সাত দিনে যা ঘটবে তার ওপর রাজনীতির গতি-প্রকৃতি অনেকখানি নির্ভরশীল হবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.