Sat. May 28th, 2022

 

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, ১৩০ কোটি জনসংখ্যা মহাদেশ আফ্রিকার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে কোনো প্রতিনিধি নেই, এটা ‘মহাঅবিচার’। নিরাপত্তা পরিষদে আফ্রিকার প্রতিনিধিত্ব আবশ্যক বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শনিবার তুরস্কে অনুষ্ঠিত তৃতীয় তুর্কি-আফ্রিকা অংশীদার সম্মেলন’ এর সূচনা বক্তব্যে এরদোগান এসব কথা বলেন। এরদোগান তার বিখ্যাত উক্তি, ‘বিশ্ব পাঁচ রাষ্ট্রের থেকে বড়’ উচ্চারণ করে বলেন, তুরস্কের এই স্লোগান আফ্রিকার ভাই-বোনদের জন্যও প্রযোজ্য।

প্রসঙ্গত, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের (স্থায়ী) সদস্য পাঁচটি। সেগুলো হলো- যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন ও রাশিয়া। বিশ্ব সংস্থায় এই দেশগুলো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণে মুখ্য ভূমিকা পালন করে। কিন্তু এরদোগানের মতে- বিশ্ব এই পাঁচ দেশের থেকেও বড়।

জাতিসংঘকে এই ‘পাঁচ রাষ্ট্রীয়’ ব্যবস্থায় সংস্কার আনা প্রয়োজন বলে বিগত কয়েক বছর ধরে বক্তব্য দিয়ে আসছেন তিনি। তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, আফ্রিকা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে প্রতিনিধিত্ব করার যোগ্য। তাদেরকে (আফ্রিকা) নিরাপত্তা পরিষদে প্রতিনিধিত্ব করতে হলে তুরস্কের সঙ্গে একত্রে আওয়াজ তুলতে হবে।

ইস্তামবুলে অনুষ্ঠিত এই সামিটে আফ্রিকান সরকারগুলোর শতাধিক মন্ত্রী, ১৬ জন প্রেসিডেন্ট অংশ নিয়েছেন। ‘স্বাভাবিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধিতে অংশীদারিত্ব বৃদ্ধি’ প্রতিপাদ্যে এই সামিট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সম্মেলনে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, তুরস্ক কখনো আফ্রিকা থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়নি।

মহাদেশটির বিশেষ করে উত্তর আফ্রিকান দেশগুলোর স্বাধীনতা আন্দোলনে ‘কঠিন পরিস্থিতি’ সত্ত্বেও আঙ্কারা তাদেরকে শক্ত সমর্থন দিয়েছে। ১৬ বছর পূর্বে যেটা অসম্ভব ছিল, তুরস্ক-আফ্রিকার যৌথ প্রচেষ্টায় দুই পক্ষের সম্পর্ক সেই পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে বলেও সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন তিনি। উৎসঃ যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published.