Sat. May 28th, 2022

 

তরুণ প্রজন্মের সুপরিচিত গায়ক ইলিয়াস হোসাইনের সঙ্গে নতুন সংসার পেতেছেন ক্রিকেটার নাসিরের সাবেক প্রেমিকা মডেল ও অভিনেত্রী সুবাহ শাহ হুমায়রা। আগে থেকেই তাদের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি পারিবারিক আয়োজনে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। তবে এটি সুবাহর প্রথম বিয়ে হলেও ইলিয়াসের তৃতীয় বিয়ে। প্রথমে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশি শিক্ষার্থী নিশাত আলমকে বিয়ে করেন ইলিয়াস।

সে সময় নিশাত মেডিকেল সায়েন্সের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। নিশাতের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর কারিনকে বিয়ে করেন এই গায়ক। কারিন সুইডেনের স্টকহোমে থাকেন। দ্বিতীয় স্ত্রীকে ডিভোর্স না দিইয়েই সুবাহর সঙ্গে রাজধানীর বনানীতে সংসার করছেন ইলিয়াস। এদিকে বাংলা ইনসাইডার এর অনুসন্ধানে বের হয়ে এসেছে নতুন এক তথ্য।

বিপাকে পরেই সুবাহকে বিয়ে করতে হয়েছে ইলিয়াসের। বাংলা ইনসাইডার এর হাতে বেশ কিছু অডিও এসেছে যেখানে ইলিয়াস তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে সুবাহকে বিয়ের কারণ বলেছেন। ইলিয়াস সেই অডিওতে বলেন, তাকে জোর করেই বিয়ে করেছেন ইলিয়াস। শুরুতে তাদের মাঝে বন্ধুত্ব থাকেও পরে তা প্রেমে মোড় নেয়। আর তখন সুবাহ তাকে নানা ভাবে বিয়ের করার জন্য চাপ দিতে থাকেন।

ইলিয়াস আরও বলেন, এক পর্যায় আমি জীবন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগি। কেননা সুবাহ সাথে বিভিন্ন মহলের লোকের উঠা বসা আছে। আমি শুধু তোমাকে একটা ডিভোর্স পেপার পাঠিয়েছি। কিন্তু সেটি গ্রহণ হবে না। এদিকে ভিন্ন সুর শোনা গেলো ইলিয়াসের বর্তমান স্ত্রী সুবাহ কাছে। তিনি রোববার (২৬ ডিসেম্বর) ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। যেখানে তিনি ইলিয়াসের দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে নানা কথা বলেছেন। তার স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

”ডিভোর্স লেটার দেখেই সম্পর্কে জড়িয়েছিলাম। আমি তাও বৈধভাবে কারিন এবং তার মা সুকন্যা দিপাকেও নিজেই সব খুলে বলেছি যে, আমরা দুজন বিয়ে করে ফেলবো। ইলিয়াস আমাকে বিয়ে করতে চায়, আমিও চাই। তাও ২ মাস আগে। এখন যদি ওই মহিলারা অস্বীকার করেন যে, তারা কিছুই জানেন না! মানুষকে উল্টা পাল্টা মিথ্যা বলে তাহলে আমার কাছে প্রমাণ আছে যে, ইনফর্ম করেছিলাম তাদেরকে অনেক আগেই।

আর যদি কোন পুরুষের ক্ষমতা থাকে বউ পালার সে একের অধিক বিয়ে করতে পারে। আর এমন তো না যে ডিভোর্স না দিয়ে বাচ্চা রেখে বিয়ে করেছে ইলিয়াস! আমি তো জানি, ইলিয়াসের সাথে কারিন লিভ টুগেদার করেছিলো। কারণ হলো ওই বিয়ের কোনো লিগ্যাল কাবিননামাই নেই! হাহাহা…। ওই মেয়ে থাকে বিদেশে। তিন বছর ধরে বাংলাদেশে আসে না। শুধু মোবাইলে কথা বললে কি সংসার হয় নাকি? ওই মেয়ে কারিন এবং তার মায়ের অনেক অবৈধ সম্পর্ক আছে বিদেশে এবং বাংলাদেশে এটাও আমি জানি। সে মেন্টালিভাবে প্যারা দিতো অলওয়েজ।

এটা ইলিয়াসের সার্কেলের সবাই জানে যে ওরা ম্যারেড লাইফে কখনো হ্যাপি ছিল না। আর ঐ মেয়ে তিন বছর ধরে বাংলাদেশে আসে না ফিজিক্যাল রিলেশনও ছিল না। আমি তখন ইলিয়াসের ভালো বন্ধু ছিলাম। পরে আমাদের দুজনের ভালোলাগা থেকেই বিয়ের ডিসিশন নিয়ে আমরা ফ্যামিলিগত ভাবে সবাইকে জানিয়ে যা করার করেছি। আমরা তো পাপ কিছু করিনি। আমাকে আর ইলিয়াসকে যদি আপনাদের ভালো না লাগে প্লিজ ইগ্নোর করতে পারেন। আমাদের দুজনকে ফলো করার দরকার নাই, দরকার নাই লাইক দেওয়ার…দরকার নাই।

আমরা দুজন দুজনের সাথে ভালো আছি আলহামদুলিল্লাহ! আমরা চেয়েছিলাম যখন ফাইনালি বড় করে অনুষ্ঠান করব তখন মিডিয়া পাবলিককে বলবো। কিন্তু এতো অশান্তির জন্য তা করা সম্ভব হলো না। আমাদের জন্য দোয়া করবেন। বিনা কারণে হ্যারেসমেন্ট করলে মানহানি মামলা করতে বাধ্য হবো। আইন সবার জন্যই সমান। আমার কিছু বলার নেই আর।”

উল্লেখ্য, নবাগত নায়িকা সুবাহ ছয়টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত তার অভিনীত কোনো সিনেমা মুক্তি পায়নি। অন্যদিকে, ইলিয়াস হোসাইন ‘না বলা কথা’, ‘আমার ভিতর’, ‘এক পলকে’, ‘নীল নয়না’, ‘সারাটি জীবন’, ‘শোন একটা কথা বলি’ গানগুলোর মাধ্যমে শ্রোতা মহলে তুমুল জনপ্রিয়তা পান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.