Sat. May 28th, 2022

 

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার একের পর এক ম্যাজিক দেখিয়েই যাচ্ছেন। এবার আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য, বিএনপির জেলা ও মহানগরের নেতাকর্মী, জাতীয় পার্টির নেতাকর্মী, উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যানদের নিয়ে জনসংযোগ করেছেন তিনি।

গতকাল শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) সকাল থেকে বন্দরের ২৫ নং ওয়ার্ডের কাজী নজরুল ইসলাম কলেজের সামনে থেকে এ জনসংযোগ শুরু হয়। এ জনসংযোগে অংশগ্রহণকারীরা তৈমূর আলম খন্দকারের হাতি মার্কা পক্ষে ভোট চেয়ে মিছিল করেন এবং সবার কাছে দোয়া চান।

অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার বলেছেন, নির্বাচন কমিশন এখনো নিরপেক্ষ হচ্ছে না। তারা নিরপেক্ষ আচরণ করছে না। বন্দরে তারা শুক্রবার বিশাল স্টেজ করে কেন্ত্রীয় নেতাদের নিয়ে জনসভা করছে। এর আগে সিদ্ধিরগঞ্জেও স্টেজ করে নির্বাচনী প্রচারণার সভা করেছে। এটা নির্বাচনি আচরনবিধির লঙ্ঘন। আমি নির্বাচনের মাঠে সমান সুযোগ পাচ্ছি না।

আমি আজকে একটা অভিযোগ দিয়েছি আমার প্রধান নির্বাচনি এজেন্ট এটিএম কামালের দ্বারা। সেটা হলো রাস্তায় তারা বড় বড় গেট করছে। আমার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। সকাল থেকে তারা মাইকিং শুরু করে, বড় বিলবোর্ড করছে তারা। এসব অভিযোগ দিয়েছি। তিনি বলেন, আমি একটা বিষয় বিশ্বাস করি, পাথরে লিখা নাম মুখে যাবে, হৃদয়ে লিখা নাম সে নাম রয়ে যাবে।

মানুষের হৃদয়ে এখন হাতি লিখা হয়ে গেছে। তৈমূরের সাথে উপস্থিতদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন- সাবেক আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য এস এম আকরাম, বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপির আতাউর রহমান মুকুল, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাতীয় পার্টির দেলোয়ার হোসেন, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাতীয় পার্টির এহসান উদ্দিন আহমেদ, মুছাপুর ইউনয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাতীয় পার্টির মাকসুদ হোসেন, স্বতন্ত্র নির্বাচনে জয়ী ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.