Breaking News
Home / সারাদেশ / শুদ্ধি অভিযান: এইমাত্র গ্রেপ্তার গোল্ডেন মনির

শুদ্ধি অভিযান: এইমাত্র গ্রেপ্তার গোল্ডেন মনির

 

রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় নিজ বাসায় অভিযান চালিয়ে স্বর্ণব্যবসায়ী মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এসময় তার বাড়ি থেকে অ’স্ত্র, মা’দ’ক, স্বর্ণ ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। কে এই গোল্ডেন মনির?

কাপড়ের দোকানের বিক্রয়কর্মী থেকে স্বর্ণ চো’রাকারবা’রি ও ভূমিদস্যু হয়ে ওঠে গোল্ডেন মনির। গোল্ডেন মনির একটি রাজনৈতিক দলের অর্থ যোগান দিতো বলে জানিয়েছে র‌্যাব। শুক্রবার (২০ নভেম্বর) রাত ১০টা থেকে গোল্ডেন মনিরের বাসা, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানসহ বেশ কয়েকটি জায়গায় অভিযান চালায় র‌্যা’ব।

র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু নেতৃত্বে ১২ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে এই অভিযান চলে। ছয় তলা ভবনটি ঘিরে এসময় প্রচুর সংখ্যক র‌্যাব সদস্য মোতায়েন রয়েছে। ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরে তল্লাশি চালিয়ে মা’দ’ক ও অ’স্ত্র জব্দ করে র‌্যাব। অবৈধভাবে আমদানী করা দুটি বিলাসবহুল গাড়ি পাওয়া যায়। যার মূল্য তিন কোটি টাকার ওপরে।

এছাড়া শোরুমে আরও তিনটি গাড়ি পাওয়া যায়। নব্বই দশকে গাউছিয়া মার্কেটের কাপড়ের দোকানের বিক্রয়কর্মী স্বর্ণ চোরকারবারী, হুণ্ডি ও ভূমি ব্যবসায়ী হয়ে ওঠেন। রাজউকের কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজশে বাড্ডা ও কেরানীগঞ্জে দুশো’রও প্লটের হদিস পেয়েছে র‌্যাব। র‌্যাব জানায়, গোল্ডেন মনিরের আরেকটি পরিচয় আছে, সেটা হচ্ছে ভূমিদুস্য।

রাজউক কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশ করে ভুয়া কাগজপত্র করে জমির মালিক হন। ঢাকার শহরের ডিআইটি প্রজেক্ট, এর পাশাপাশি বাড্ডা নিকুঞ্জ উত্তরা এবং কেরানীগঞ্জে ২০০ বেশি প্লট রয়েছে। ইতোমধ্যে ৩০টির কথা তিনি আমাদের কাছে স্বীকার করেছেন। এছাড়া, প্রাথমিকভাবে একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ততা মিলেছে গোল্ডেন মনিরের, জানায় র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে দুটি মামলা আছে। কর ফাঁকির বিষয়টির সঙ্গে এনবিআর ও বিআরটিএ’র লোকজন জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।

About mk tr

Check Also

স্বামী ছাড়া বাঁচবেন না, তাই স্বামীকে কিডনি দিয়ে বাঁচালেন স্ত্রী

  বাঁচতে হলে তাকে যেভাবেই হোক একটি কিডনি প্রতিস্থাপন করতে হবে। কিন্তু কে দেবে কিডনি। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *