Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / ঈদ উদযাপন নিয়ে এইমাত্র যে ঘোষণা দিলো মালয়েশিয়া সরকার

ঈদ উদযাপন নিয়ে এইমাত্র যে ঘোষণা দিলো মালয়েশিয়া সরকার

 

সমগ্র মালয়েশিয়ায় করোনা নিয়ন্ত্রণে এখনো চলমান ‘ন্যাশনাল রিকভারি প্ল্যান’ এর প্রথম ধাপের লকডাউন। পাশাপাশি কিছু রাজ্যে চলছে দ্বিতীয় ধাপের লকডাউন। তবে এই লকডাউনের মধ্যেও সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক সামাজিক দূরত্ব মেনে সতর্কতার সঙ্গে ঈদুল আজহার নামাজে অংশ নেওয়া যাবে।

একই সঙ্গে মসজিদ, সূরাউ এবং অনুমোদিত এলাকার সীমাবদ্ধ স্থানে পশু জবাই করার অনুমতি দিয়েছে দেশটির সরকার। মসজিদ এবং সুরাউগুলোতে উপস্থিত সব মুসল্লিকে প্রবেশ পথে নিজ মোবাইলের মাইসেজাতেরা অ্যাপের মাধ্যমে স্ক্যান করে ভেতরে প্রবেশ করতে হবে। এছাড়া প্রবেশ পথে মুখে মাস্ক, শরীরের তাপমাত্রা, হ্যান্ড স্যানিটেশন বাধ্যতামূলক করতে হবে।

স্থানীয় সময় শনিবার (১৭ জুলাই) দেশটির স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. নূর হিশাম আবদুল্লাহ এক বিবৃতিতে বলেন, গত ঈদুল ফিতরে ঈদ উদযাপন করতে গিয়ে সরকারের দেওয়া এসওপির বিধিনিষেধ মানা হয়নি। এতে গত ১ জুন থেকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক খাতে লকডাউন বাস্তবায়নের পর মোট ২৬৭টি কমিউনিটি ক্লাস্টার শনাক্ত করা হয়েছে।

তার মধ্যে সর্বাধিক সংখ্যক রোগী শনাক্ত হয়েছে পেরাক, তেরেংগানু ও কেলান্তান রাজ্যে থেকে। যে কোনো বড় ধরনের উৎসব, জনসমাগম, গণচলাচলের পরই আবার সংক্রমণের হার বাড়তে পারে; সেদিকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। করোনা রোধে সতর্ক করে তিনি জানান, যে যেখানে আছে সেখানে থেকেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে হবে।

এক জেলা থেকে অন্য জেলা অথবা এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে না যাওয়ার অনুরোধ করেন। এছাড়া কেউ আবেগের বশবর্তী হয়ে আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে ঈদের ছুটি কাটাতে যাবেন না। অনেকের কোনো বাহ্যিক লক্ষণ না থাকায় বুঝা যায় না তার পাশের ব্যক্তিটিই করোনাভাইরাস বহন করছে। তিনি আরও জানান, আমাদের মনে রাখতে হবে সবার ওপরে মানুষের জীবন। বেঁচে থাকলে সবকিছু স্বাভাবিক হওয়ার পর আবার সবাই আনন্দঘন পরিবেশে ঈদ উদযাপন করতে পারবে।

এদিকে এই বছরও ‘ন্যাশনাল রিকভারি প্ল্যান’ এর প্রথম ধাপের লকডাউনের এসওপি অনুযায়ী সব ধরনের গণজমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে এসওপির নিয়ম কানুন ভঙ্গ করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

About mk tr

Check Also

আরব আমিরাতের যে ৬ স্থানে মাস্ক না পরলেও হবে

  করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সংযুক্ত আরব আমিরাত। সেই পরিস্থিতি এখন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *